কেমন হল RAEES? (২৬ জানুয়ারি, ২০১৭)

sddefault

 

২০১৫ সালে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, “গত কয়েকবছর ল্যাদ খেয়ে বছরে একটা করে ছবি করেছি। কিন্তু আর নয়। ৫০ বছর বয়স হতে চলল… আগামী পাঁঁচবছরে আমি ১৫ খানা ছবি করতে চাই। বছরে তিনটে করে ছবি।”

“Ek film mein mann ke liye karna chahta hu, ek tann ke liye aur ek dhan ke liye (I want to do one film for the mind, one for my physical capability and one for money).

তা রাজা রাজার মতোই নিজের কথা রেখেছেন। গত একবছরের স্প্যানে সত্যিই তিন-তিনখানা ছবি উপহার দিয়েছেন দর্শকদের– FAN, DEAR ZINDAGI এবং RAEES। রাজার প্রজাবর্গের জন্য আশার কথা এই যে এর মধ্যে রাজামশাই দুটো ছবিই মনের জন্য করেছেন বলে খবর। পড়ে থাকা একটি ছবির ঘাড়েই অতএব ছিল tann আর dhan-এর দায়িত্ব। তার নাম, বলাই বাহুল্য, RAEES।

raees-2
তা কেমন সামলেছে ছবিটা এই দু’খানা দায়িত্ব? এই প্রশ্নের উত্তরটা আমিও গুরুর অনুকরণে তিন ভাগে ভাগ করে দিই? প্রথমে একটামাত্র বাক্যে বলে দেব, ছবিটা আমার কেমন লেগেছে। তারপর বলব ছবিটার কী কী ভাল্লেগেছে। সবশেষে থাকবে (পড়ুন, critic হিসেবে নিজেকে unbiased প্রমাণ করার আপ্রাণ চেষ্টায়… হেঁ হেঁ…) খারাপ লাগা-গুলো…

এক (আদতে দুই) বাক্যে: নতুন বোতলে পুরনো মদ। কিন্তু কে না জানে, মদ যত পুরনো, তত গাঢ় তার নেশা! 😉

ভাল লেগেছে : গল্পটা সবার বহুবার দেখা। হিন্দি এবং ইংজিরিতে এই নিয়ে ভূরি ভূরি ছবি হয়েছে বললে কমই বলা হবে। তবু সেই পুরনো গল্পটাই দেখতে মন্দ লাগেনি। অসাধারণ লেগেছে নওয়াজের অভিনয়। কী শাহরুখের সঙ্গে দৃশ্যে, কী অন্য জুনিয়র আর্টিস্টদের সঙ্গে, একটা বলকেও ভদ্রলোক বাউন্ডারির ভিতর থাকতে দেননি। ফারহান আখতার আশপাশে থাকলেই শাহরুখ কেন এমন ভায়োলেন্ট হয়ে পড়েন, জানি না। তবে ফারহানের পরিচালনায় DON এবং DON 2-তে শাহরুখ খান ঠান্ডা মাথার শয়তান হলে RAEES-এ তিনি ঠিক তার উলটো। গ্যাংস্টার হয়েও রইস জনদরদী, প্রয়োজনে খুনোখুনিতে মেতে উঠলেও সে ঠিক শয়তান নয়। যদিও আমার খুব আশা ছিল BAAZIGAR আর DARR-এর ভয়ঙ্কর সুন্দর শয়তান শাহরুখকে আবার দেখতে পাব। কিন্তু এই গল্পে না শাহরুখ কারও প্রেমে সাইকোপ্যাথ হয়েছেন, না প্রতিশোধের স্পৃহায় হয়েছেন পাগল। কাজেই এই ছবিতে ‘সেই’ ভয়টা ফিরে আসার কথা ছিল না। কিং খান আনেওনি অতএব। আর ভাল লেগেছে মাহিরার অভিনয়। আর ভাল লেগেছে ছবির স্টাইল। আর ভাল লেগেছে শাহরুখের রক্ত জল করে দেওয়া রাগ। আর ভাল লেগেছে ভায়োলেন্সে গ্যাংস অফ ওয়াসিপুরকে ছোঁয়ার চেষ্টাটুকু। আর ভাল লেগেছে…

shahrukh-khan-baazigar-scene
দ্যাখো দ্যাখো আমি biased নই : ছবিটা আর দশ-পনেরোমিনিট ছোট হলেও কোনও ক্ষতি ছিল না। গল্পে, আরও স্পেসিফিক্যালি বলতে গেলে, পরিচালনায় আর একটু মারপ্যাঁচ থাকলে মন্দ হত না। ছবির শেষটা অত অবশ্যাম্ভাবী না হলেও ভাল লাগত।

পুনঃ কোনও একটা রিভিউতে পড়ছিলাম, এ ছবির শেষ দৃশ্য নাকি মনে পড়িয়ে দেবে ঈশ্বরপ্রতিম Al Pacino-র Scarface ছবির শেষ দৃশ্যকে। সেই রিভিউ যিনি লিখেছেন, তিনি হয় আদৌ কোনওদিন Scarface দেখেননি আর নইলে আমি শাহরুখের অন্ধ ভক্ত হলে তিনি অতিভক্তিতে একেবারে হেলেন কেলার!

পুনঃ পুনঃ (পড়ুন, আমিরকে খোঁচা মারার লোভ সম্বরণ করতে না-পারা) :
আমির দু’বছরের পরিশ্রমে ভারি ভাল একটা ছবি তৈরি করেছেন, ভারি ভাল কথা। কিন্তু রাজা এখনও ক্ষমতা রাখেন একবছরে তিনরকম তিনখানা ছবি করার। তিনি অতএব ফাটিয়ে করবেন। আমরাও ফাটিয়ে সিটি মারবই মারব।

ব্যাপারটাকে অতিসংক্ষেপে RAEES-এর সংলাপ ধার করেই এভাবেও বলা যায়, ‘দিন, মাস, দঙ্গল, সুলতান… এসব লোকেরা বানায়। কিন্তু shero ka zamana hota hai Majmuder saheb…’ 😉

dhingana-lyrics

Advertisements

4 thoughts on “কেমন হল RAEES? (২৬ জানুয়ারি, ২০১৭)

  1. ami SRk r bhokto, tabole Hellen Keller types noi 😛
    amar raees bhalo legeche, tobe script r ektu tight hole parto, Onek besi incident dekhanor chesta kora hoyeche. Tobe jai hok, he is the KIng: SRK ko na nahi bolte. paap lagta hai 😉

    Liked by 1 person

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s